ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ৫:১৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

আলীকদমে মেডিকেল কলেজে পড়ুয়া এক পর্যটকের মৃত্যু

  • আপডেট: Saturday, June 22, 2024 - 1:41 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক।। আলীকদম ম্যারাইনতং পাহাড়ে ঘুরতে এসে এক মেডিকেলের ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। তিনি বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র। তার নাম ইফতে খায়রুল আহমেদ আবিদ (২১)। ২১ জুন মধ্যরাতে আলীকদম ম্যারাইনতং পর্যটন স্পটে অসুস্থ হয়। রাত ১২ টার দিকে খিছনী হয়, ওই সময় সহযাত্রী বন্ধুরা বাইকে তুলে পাহাড় থেকে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে নামানোর সময় সে মারাযায়। এর পরও তার বন্ধুরা তাৎক্ষণিক লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসলে, ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সবার ধারণা পানি শুণ্যতায় মারা গেছে আবিদ। জানাযায়, সে বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান। টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি গান্দিনা গ্রামের বাসিন্দা এনজিও কর্মী হেলাল উদ্দীন মাতা জিনিয়া আহমেদ এর ছেলে। সে মেধাবী ছাত্র আবিদ বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র। এই প্রথম বন্ধুদের সাথে পাহাড়ে বেড়াতে আসে সে। আবিদসহ ১২ জন বন্ধু ২০ জুন রাত সাড়ে ১১ টায় ঢাকা থেকে ট্রেনে চড়ে চট্টগ্রাম আসে। পরে গাড়ি যোগে চকরিয়ায়, সেখান থেকে ২১ জুন সকাল ১০টায় আলীকদম আসে। মধ্যাহ্ন ভোজ শেষ করে আড়াইটা তিনটার দিকে পাহাড়ে উঠে সবাই। এর মধ্যে ৪ জন বাইকে; আবিদসহ বাকিরা হেটে উঠে। দিনভর পাহাড় চূড়ার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে হেসে খেলে সময় পার করে তারা। রাতের খাওয়ার আগে আবিদ অসুস্থ্যবোধ করে। তার সহযাত্রী বন্ধুরা জানায়, আবিদ সবার সাথে কথাও বলেছে। সে খাওয়ার কথাও জিজ্ঞাসা করে এরই মধ্যে খিচুনি দিয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। লামা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের ডাক্তার জানান, হসপিটাল আনার আগে সে মারা গেছে।মৃত্যুর কোনো কারণ বুঝা যায়নি, তবে নেশার কোনো আলামত ছিলোনা। লামা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শামীম শেখ জানান, প্রথমিকভাবে বুঝা যাচ্ছে, এটা স্বাভাবিক মৃত্যু, নেশার আলামত নেই। সাথের সহযাত্রী অন্য ১১জন তারা সবাই কলেজ পড়ুয়া। তারা কেউ বিড়ি সিগারেটও পান করেন না বলে দাবি করেছেন। সবার একটাই ধারণা, ইফতে খায়রুল আহমেদ আবিদ পানি শুণ্যতা হেতু মারা যায়। প্রসঙ্গত, আলীকদম ম্যারাইনতং পাহাড়ের উচ্চতা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৬১০ ফুট। মোটর বাইকে চড়ে সময় ১২ মিনিট এবং এঁকে বেঁকে ইটের পথে পায়ে হেঁটে উঠতে ১ ঘন্টা তারও কিছু কম সময় লাগে। উঠার পথে রেষ্ট করে করে এবং পানি করতে হয় বেশ কয়েক দফে। এসব নিয়ম না মেনে নতুন কোনো আগুন্তক গায়ের জোর খাটাতে গেলে বিপন্ন হতে পারে জীবন।