ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ৫:৩৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

গবেষণামূলক কাজে নুহাশ পল্লীতে এডাস্ট’র জার্নালিজম বিভাগের শিক্ষার্থীরা

  • আপডেট: Sunday, May 5, 2024 - 1:05 pm

সানজিদা আক্তার শবনম।। 

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (এডাস্ট)-এর জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের উদ্যোগে ফিল্ড ট্রিপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৫ই মে রবিবার এডাস্ট এর বাংলা লেঙ্গুয়েজ ফর মিডিয়া কোর্সের একদল শিক্ষার্থী দিনব্যাপী নুহাশ পল্লী ভ্রমণ করেন। সেখানে তারা বাংলা সাহিত্যের কিংবদন্তি লেখক হুমায়ূন আহমেদের জীবন, তার কাজের ওপর গবেষণামূলক কার্যক্রম করেন ।

জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক কেয়া বোস, জোবায়ের আহমেদ ও নুসরাত জাহান সুচির তত্ত্বাবধানে ১১ জন শিক্ষার্থী নুহাশ পল্লীর বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করে এবং এছাড়াও কোর্স অ্যাসাইনমেন্ট হিসেবে শিক্ষার্থীরা কয়েকটি দলে হুমায়ূন আহমেদের ওপর ভিন্ন ভিন্ন তথ্যচিত্র তৈরি করেন, পাশাপাশি নুহাশ পল্লীর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ঘুরে দেখেন।

বিভাগের শিক্ষার্থী মেহজাবিন মিম’ বলেন, ‘হুমায়ূন আহমেদের আত্মজীবনীমূলক বেশ কিছু বই পড়ার কারণে স্বাভাবিকভাবেই লেখকের জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে জানার সুযোগ হয়েছে। কিন্তু আজ নুহাশ পল্লীতে এসে তার প্রিয় জায়গা ভ্রমণ করে বই পড়ে অর্জন করা জ্ঞানের পাশাপাশি নিজ চোখে দেখে অনেক নতুন কিছু শিখছি, লেখককে অনুভব করতে পারছি।’

আরেক শিক্ষার্থী ‘সুমন সিকদার’ বলেন, ‘আমি যখন ছোট ছিলাম তখন হুমায়ূন আহমেদ স্যারের নাটক দেখতাম, নুহাশ পল্লীতে অনেক সিরিজের শুটিং হয়েছিল তাই আমি সেই জায়গাগুলিতে খুব উত্তেজিত ছিলাম এবং এটি আমার জন্য একটি দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা ছিল। হুমায়ূন আহমেদই একমাত্র বাঙালি লেখক যে আমাকে তার লেখায় আকৃষ্ট করেছিল। আমি কখনোই বইয়ের কীট ছিলাম না, তবে তার মনোমুগ্ধকর গল্পগুলো আমাকে পুরো উপন্যাসটি পড়া শেষ করে দিয়েছে। আমি কৃতজ্ঞ যে আমাকে নুহাশ পল্লী দেখার এই সুযোগ দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শরীফুল ইসলাম ইমশিয়াত বলেন, প্রথাগত শিক্ষার বাইরে ফিল্ড ট্রিপে শিক্ষার্থীরা আরও বেশি গবেষণাধর্মী এবং প্রাকটিক্যাল নলেজ ধারণ করতে পারে। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের মাঝে একটি মেলবন্ধন তৈরি হয়।