ঢাকা | জুন ২২, ২০২৪ - ৯:০৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

রাঙ্গুনিয়ায় জোড়া হত্যা মামলার আসামীকে ধরে পুলিশে সোপর্দ 

  • আপডেট: Wednesday, February 28, 2024 - 12:11 pm
রাঙ্গুনিয়া  (চট্টগ্রাম)  প্রতিনিধি :
চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় মো. হারুন (৪০) নামে জোড়া খুনের এক আসামীকে ধরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন নিহতের স্বজনরা। মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) তাকে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে গেল রোববার তাকে চট্টগ্রাম মোহরা রাস্তার মাথা এলাকা থেকে তাকে ধরেন নিহতের স্বজনরা। পরে এলাকায় আনা হলে উত্তেজিত গ্রামবাসী তাকে পিঠিয়ে আহত করে। গ্রেফতার হারুন উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের মীরেরখীল গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল ফরাজ জুয়েল বলেন, “গ্রেফতার হারুন সরফভাটায় আমির হোসেন (৬৫) ও তার স্ত্রী জুলেখা বেগম (৫৫) খুনের মামলায় ১৩নং এজহার নামীয় আসামী। তাকে নিহতের স্বজনরা চট্টগ্রাম রাস্তারমাথা এলাকা থেকে ধরে।
এসময় তাকে নিজ গ্রামে আনা হলে উত্তেজিত এলাকার জনসাধারণ তাকে মারধর করে আহত করে। খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করে চট্টগ্রাম মেডিকেলে চিকিৎসা করানো হয়। পরে সুস্থ হলে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।”
উল্লেখ্য গেল বছরের ৩০ অক্টোবর দিনগত রাতে একদল দুর্বৃত্ত দেশীয় ও আগ্নেয়াস্ত্র হাতে ঘরে ঢুকে আমির হোসেন ও তার স্ত্রী জুলেখা বেগমকে নির্মমভাবে হত্যা করে। এই ঘটনায় নিহতের মেয়ে মনি আক্তার বাদী হয়ে ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১০/১১ জনকে বিবাদী করে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।
এখন পর্যন্ত কায়কোবাদ, দিদার, বাবর, হারুনসহ মামলার এজহারভুক্ত চার আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
এদিকে সরফভাটায় পাহাড়ে লুকিয়ে থাকা সংজ্ঞবদ্ধ সন্ত্রাসী চক্রের বেপরোয়া চাঁদাবাজি ও আতংকে মীরেরখীল গ্রামের অন্তত দেড়শো পরিবার নিজ ঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে বাধ্য হয়েছে। চিহ্নিত এই চক্র একের পর এক খুনসহ নানা সন্ত্রাসী কার্যক্রম করে যাচ্ছে। এদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী এলাকাবাসীর।